আজ বৃহস্পতিবার | ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ভাষা পরিবর্তনঃ বাংলা ইংরেজি

ই-পেপার ভার্সন দেখতে ক্লিক করুন  e-paper

শিরোনাম
  • সংশোধন নিয়ে দোটানা সড়ক আইন
  • আলমডাঙ্গার হারদীতে শিশু শিক্ষার্থীদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা
  • ফসলের মাঠ থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার
  • আন্তর্জাতিক ভাষা দিবসে এতিম শিশুদের মধ্যে উন্নতমানের খাবার বিতরণ করলেন দিলীপ কুমার আগরওয়ালা
  • স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামাতো বোনদের জমি জবর দখলের অভিযোগ
  • নারী উদ্যোক্তাদের নিয়ে আয়োজনে চুয়াডাঙ্গায় মাতৃভাষা দিবস পালন
  • দর্শনায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে নাটক মঞ্চন্থ
  • ঝিনাইদহে জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তাদের সাথে এমপি মহুলের মতবিনিময়
  • চুয়াডাঙ্গায় বিনম্র চিত্তে ভাষা শহীদদের স্মরণ
  • খাদিমপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন 
  • প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল হতে পারে আজ

    নিজস্ব প্রতিবেদক:
    দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হতে পারে আজ। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের (ডিপিই) নিয়োগ শাখা থেকে বিষয়টি জানা গেছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নিয়োগ শাখার সহকারী পরিচালক দেলোয়ার হোসেন বলেন, প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের চূড়ান্ত ফল তৈরির কাজ বুয়েট থেকে চূড়ান্ত করা হয়েছে। এটি আজ বৃহস্পতিবার প্রকাশ করতে সকাল থেকে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ও ডিপিই’র অনেক কর্মকর্তা সেখানে অবস্থান করছেন। ডিপিইর মহাপরিচালক ও মন্ত্রণালয়ের সচিবের সেখানে দুপুরের মধ্যে যাওয়ার কথা রয়েছে। তারা যাওয়ার পর ফল চূড়ান্ত করলে সেটি বিকেলের মধ্যে প্রকাশ করা হবে। ডিপিই থেকে জানা যায়, সহকারী শিক্ষকের পদসংখ্যা বাড়িয়ে ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথা থাকলেও এটি হচ্ছে না। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত পদেই নিয়োগ হচ্ছে। সে অনুসারে ৩২ হাজার ৫৭৭টি পদেই নিয়োগ দেওয়া হবে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা, ২০১৯-এর ৮ ধারার ২ নম্বর উপধারার (ঘ)-তে বলা হয়েছে, ‘নির্ধারিত কোটার শিক্ষকদের মধ্যে প্রত্যেক ক্যাটাগরিতে (নারী ৬০ শতাংশ, পোষ্য ২০ শতাংশ ও অবশিষ্ট পুরুষ) অবশ্যই ২০ শতাংশ বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রিধারী প্রার্থীদের নিয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। তবে শর্ত থাকে, এভাবে ২০ শতাংশ কোটা পূরণ না হলে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া যাবে।’ জানা গেছে, এই নিয়োগে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা তিন ধাপে নেওয়া হলেও চূড়ান্ত ফল একবারেই প্রকাশ করা হবে। প্রথম ধাপের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ৪০ হাজার ৮৬২ জন, দ্বিতীয় ধাপে ৫৩ হাজার ৫৯৫ এবং তৃতীয় ধাপে ৫৭ হাজার ৩৬৮ জন। ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর সহকারী শিক্ষকের ৩২ হাজার ৫৭৭টি শূন্য পদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। এই নিয়োগ পরীক্ষায় মোট আবেদন করেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন প্রার্থী।
    বর্তমানে সারা দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে ৬৫ হাজার ৬২০টি। এসব বিদ্যালয়ে শিক্ষক আছেন ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৯৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ শিক্ষক ১ লাখ ২৬ হাজার ৪৩০ এবং নারী শিক্ষক ২ লাখ ২৯ হাজার ৯৩৬ জন।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    অনুবাদ »